মেনু নির্বাচন করুন

“সুবিধা বঞ্চিত খায়রুন নেছা’কে হুইল চেয়ার প্রদান করলেন পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা”

বাংলাদেশ পুলিশ পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকার সামাজিক, মানবিক ও উৎসাহমূলক কার্যক্রমে ভূমিকা রেখে চলেছেন। তারই অংশ হিসেবে মানবিক পুলিশ সুপার খ্যাত মোঃ জাহিদুল ইসলাম একের পর এক গণমুখী কার্যক্রম গ্রহণ করছেন। “চুয়াডাঙ্গা আঞ্চলিক ভাষা পরিষদ” নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট দেখে পুলিশ সুপার নবগঠিত দর্শনা থানার গড়াইটুপি গ্রামের আনারুলকে গত ০১.০৯.২০২০ খ্রি. তারিখে হুইল চেয়ার প্রদান করেন।

উক্ত বিষয়টি জেলা পুলিশ চুয়াডাঙ্গার ফেসবুক পেজে পোস্ট করা হয়। চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের ফেসবুক পেজে বিষয়টি দেখে জনাব মোঃ সাঈদ হোসেন, পিতা-আবু মুছা, গ্রাম-গোপীনগর, তারই গ্রামের পঙ্গুত্ববরণকারী মোছাঃ খায়রুন নেছা, স্বামী-আব্দুল মালেক, থানা-আলমডাঙ্গা, জেলা-চুয়াডাঙ্গা এর কথা জনৈক মোঃ মহসিন কবীরকে জানালে, মহসিন কবীর পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গার সাথে যোগাযোগ করেন। পুলিশ সুপার তাকেও একটি হুইল চেয়ার দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

গত দিনের সংবাদটি বিভিন্ন আঞ্চলিক পত্রিকায় প্রকাশিত হলে পুলিশ সুপারের মানবিক বিষয়টি নজরে আসে চুয়াডাঙ্গা জেলার একজন সাবেক অধ্যক্ষ’র। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক তিনিও অনুপ্রাণিত হয়ে সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গার সাথে যোগাযোগ করে একটি চেয়ার দিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। যার প্রেক্ষিতে অদ্য ০২.০৯.২০২০ খ্রি. তারিখ দুপুর অনুমান ১৪.১০ ঘটিকার সময় মোঃ সাঈদ হোসেন, পিতা-আবু মুছা, গ্রাম-গোপীনগর, থানা-আলমডাঙ্গা, জেলা-চুয়াডাঙ্গা সুবিধা বঞ্চিত খায়রুন নেছাকে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা কার্যালয়ে নিয়ে আসলে পুলিশ সুপার, চুয়াডাঙ্গা তাকে ০১ (এক) টি হুইল চেয়ার প্রদান করেন।

পুলিশ সুপার চুয়াডাঙ্গা বলেন, মহান মনের মানুষ সাবেক অধ্যক্ষের মত সবাই যদি সমাজের সুবিধা বঞ্চিতদের দিকে একটু নজর দেয়, তাহলে আমাদের সমাজে সুবিধা বঞ্চিতদের কষ্টভোগ করতে হত না। এসময়ে তিনি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাসহ সকল বিষয়ে চুয়াডাঙ্গা জেলাবাসীর সহযোগীতা কামনা করেন।


Share with :

Facebook Twitter